Youtube এ 4000 ঘন্টা ওয়াচটাইম ও 1000 সাবস্ক্রাইবার পাওয়ার উপায় ও এ সংক্রান্ত যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর (All in One Place) - জীবন গড়ি প্রযুক্তির সুরে ♫

Infotech Ad Top new

Infotech ad post page Top

 Youtube এ 4000 ঘন্টা ওয়াচটাইম ও  1000 সাবস্ক্রাইবার পাওয়ার উপায় ও এ সংক্রান্ত যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর (All in One Place)

Youtube এ 4000 ঘন্টা ওয়াচটাইম ও 1000 সাবস্ক্রাইবার পাওয়ার উপায় ও এ সংক্রান্ত যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর (All in One Place)

Share This
বর্তমানে ইউটিউবকে অনেকেই এই জন্য দোষ দিয়ে থাকেন এই বলে যে, ইউটিউব কর্তৃপক্ষ দিন দিন আরও অনেক কঠিন কঠিন পদক্ষেপ  নিচ্ছে যার ফলে নতুন ইউটিউবাররা এই কাজে নিরুৎসাহিত হচ্ছে। তারা তাদের স্বপক্ষে এই কথা বলতে গিয়ে ইউটিউবের নতুন নিয়ম বিগত ৩৬৫ দিনে বা একবছরে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম ও ১০০০ সাবসক্রাইবার অর্জনের কথা বার বার বলে থাকেন। কিন্তু যদি আপনি সত্যি সত্যি  ইউটিউবকে ভালবেসে থাকেন তবে একটি কথা বুকে হাত দিয়ে বলুনতো যাকে আপনি এত ভালবাসলেন তার জন্য এই টুকু ত্যাগ স্বীকার করতে পারবেন না? তাহলে আপনি ইউটিউবকে ভালবাসলেন কীভাবে?  আপনি একজন ইউটিউবার হতে চান, ইউটিউব হতে অর্থ ইনকাম করতে চান কিন্তু তার জন্য আপনি যোগ্য কিনা তার প্রমাণ দিবেন না? বলি, কোথাও চাকুরী নিতে গেলে লিখিত পরিক্ষার কথা না হয় বাদই দিলাম মৌখিক বা ভাইভা পরিক্ষা তো দিতে হয় তাই না। ইউটিউবের ক্ষেত্রে মনে করুন এইটাই সঠিক। প্রিয় ভিউয়ার আজকে আমরা ইউটিউবের বর্তমানের কঠিন রুলস বলে যেটাকে মনে করি অর্থাৎ ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম ও ১০০০ সাবস্ক্রাইবার অর্জনের সেই পরিক্ষায় কিভাবে কোন কৌশলে সামনে এগোলে আপনি একমাসের মধ্যে সফলতা পাবেন, সেটা নিয়ে আলোচনা করব। তো চলুন শুরু করি । তবে তার আগে আমরা ইউটিউবের ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম ও ১০০০ সাবস্ক্রাইবার অর্জন সম্পর্কে যে সকল প্রশ্ন আপনারা হরহামেশায় করে থাকেন সেগুলো নিয়ে আলোচনা করব-

Question ১: শুধু ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম ও ১০০০ সাবস্ক্রাইবার হলেই কি ইউটিউব মনিটাইজেশন দেয়?

উত্তর : এই প্রশ্নের সংক্ষেপে উত্তর হলো ’না’। আরও বিস্তারিত বললে বলতে হয় মনিটাইজেশন পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই

  • মনিটাইজেশন ইলেজিবল (Eligible) কান্ট্রি বা দেশ হতে আবেদন করতে হবেঃ- আমরা সকলেই জানি  ইউটিউব চ্যানেলে Country যদি আপনি বাংলাদেশ রাখেন তবে আপনি জীবনেও মনিটাইজেশন পাবেন না। তবে আপনি যদি  Available বা Eligible কান্ট্রিগুলোর যে কোন একটি সিলেক্ট করে দেন তবে আপনি বাংলাদেশ কেন যে কোন দেশ হতেই মনিটাইজেশন পাবেন। 
  • বিগত ১২ মাসে বা ৩৬৫ দিনে আপনার ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম হতে হবে।
  • কমপক্ষে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার পেতে হবে।
  • ইউটিউবের পার্টনা প্রোগ্রাম পলিসি অনুসরণ করে কন্টেন্ট বানাতে হবে।
  • ইউটিউব চ্যানেলেন সাথে একটি অনুমোদিত Adsense একাউন্ট সংযুক্ত থাকতে হবে।

Question ২: ১২ মাস(১ বছর) বলতে আসলে ইউটিউব আসলে কি বুঝাতে চায়?


উত্তরঃ থামুন এই বিষয়টি একটু ক্লিয়ার করি, অনেকেই মনে করে থাকেন ক্যালেন্ডার ইয়ার বা বর্ষপঞ্জি ধরে হয়ত ইউটিউব একবছর হিসেব করে থাকেন । আসলে ব্যাপারটি কিন্তু তা নয়, ইউটিউব এক্ষেত্রে বর্তমান সময় হতে সামনের দিন (যেটি বর্ষপঞ্জি করে থাকে) গণনা করে না বরং বর্তমান সময় হতে বিগত বার মাস বা ৩৬৫ দিন হিসেব করে। 

উদাহরণ হিসেবে বলা যায় আপনি একটি চ্যানেল খুললেন আর তাতে ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারি হতে কন্টেন্ট আপলোড দিলেন, আপনি হয়ত মনে করছেন আপনার ওয়াচটাইম আলটিমেটাম হয়ত বা এই তারিখ হতে শুরু হয়ে আগামী বার মাস বা ৩৬৫ দিন অর্থাৎ ২০২০ সালের ২ জানুয়ারিতে শেষ হবে। এই সময়ের মধ্যে আপনার ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম আর ১০০০ সাবস্ক্রাইবার না পেলে আপনি আর কখনোই আমার চ্যানেলে মনিটাইজেশন পাবনা।  আপনি তাহলে এতদিন ভুল শুনে এসেছেন আসলে ব্যাপারটি তা নয়, ইউটিউব কর্তৃপক্ষের ভাষ্য অনুযায়ী প্রথমেই আপনার ওয়াচটাইম ও সাবস্ক্রাইবার কত হলো এটি দেখার দরকার নেই বরং আপনার কন্টেন্ট উপর মনোযোগী হওয়া দরকার। আপনার কন্টেন্ট মান সম্মত ও তা ‍যদি আপনি নিয়মিত আপলোড করেন তবে ওয়াচটাইম ও সাবস্ক্রাইবার এমনিতেই চলে আসবে।  উপরের উদাহরনটিকেই ব্যবহার করি, ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারি তে কন্টেন্ট আপলোড দেওয়া ইউটিউব চ্যানেলটিতে ধরুন আপনি যদি ২০১৯ সালের ১৫ এপ্রিল অর্থাৎ প্রায় সাডে ৪ মাসের মধ্যেই ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম ও ১০০০ সাবস্ক্রাইবার পেয়ে যান তাহলেও আপনি মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।  এই ক্ষেত্রে আপনার চ্যানেলে প্রথম কন্টেন্ট আপলোডের তারিখ কোন মুখ্য বিষয় নয়।  প্রকৃত নিয়ম হলো আপনি যে তারিখে আপনার চ্যানেলের ওয়াচটাইম দেখতে যাচ্ছেন, সেই তারিখ হতে বিগত অর্থাৎ পেছনের ১২ মাস। ধরুন আপনার এই চ্যানেলটিতে ২০২০ সালের অক্টোবর ১২ তারিখে আপনি দেখতে যাচ্ছেন আপনার চ্যানেলে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম হলো কিনা তাহলে আপনাকে দেখতে হবে এই তারিখ হতে বিগত বার মাস বা পেছনের ৩৬৫ দিন অর্থাৎ ২০১৯ সালের ১১ই অক্টোবর সময়সীমার মধ্যে আপনার লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হলো কিনা। আপনার চ্যানেলের বয়স ৫ বছর হলেও সমস্যা নেই। আপনি লাস্ট ১২ মাসে ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার আনতে পারলেই হলো। আশা করি ব্যাপারটি বুঝতে পেরেছেন।

Question ৩: আমার চ্যানেলটি পুরাতন আগে ইনকাম ও করছি নতুন নিয়মে মনিটাইজেশন হারিয়েছি এখন যদি রুলস পূরন হয় তবে কি মনিটাইজেশন পাবো নাকি আমার জন্য ও ১ বছরের মধ্যে ১ হাজার সাবস্ক্রাইব ও ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচটাইম পূরন করতে হবে।

 
উত্তরঃ আপনি যে নিয়ম বা শর্ত পূরন করতে না পারার কারণে মনিটাইজেশন হারিয়েছেন সেই শর্ত পূরন হলেই কেবল মনিটাইজেশ পুনরায় ফেরত পাবেন। ইউটিউবের এই নিয়ম সবার জন্যই প্রযোজ্য। নতুন পুরাতন বলে কোন কথা নেই।

Question ৪: মনে করেন আমার চ্যানেলে ১ হাজার সাবক্রাইব আর ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম হওয়ার পর মনিটাইজেশন ও পেলাম তারপর যদি পরে সাবক্রাইব কখনও ১ হাজারের নিচে চলে আাসে তাহলে কি কোন সমস্যা হবে??? প্লীজ জানাবেন।

 
 উত্তর: যদি  ২ বা ৩ দিনের জন্য  আপনার ৩/৪ টি সাবস্ক্রাইবার কমে যায় তাহলে তারা আপনার মনিটাইজেশন তাৎক্ষণিকভাবে তুলে নিবেনা। কিন্তু এই অবসথা যদি অব্যহত থাকে অর্থাৎ সাবস্ক্রাইবার না বেড়ে যদি এই অবস্থা বেশ কিছু দিন থাকে তখন একসময় আপনার মনিটাইজেশ চলে যাবে। 
ইউটিউব তার স্বাভাবিক ক্যালকুলেশনে বলে আপনার যদি ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম পূর্ন হয় তবে আপনার ১০০০ সাবস্ক্রাইবার স্বাভাবিকভাবেই চলে আসার কথা।  তাহলে বুঝতেই পারছেন সম্ভাবনা অপেক্ষা দুর্ভাবনাটায় বেশি।

Question ৫: অনেকেই বলছে তাদের ১০০০ সাবস্ক্রাইবার ও ৪০০০ হাজার ঘন্টা ওয়াচটাইম থাকার পর ও মনিটাইজেশন অন হচ্ছে না। তা কি সত্যি না তাদের চ্যানেলে কোন সমস্যা আছে?

উত্তর: আপনাকে কে বলেছ ১০০০ সাবস্ক্রাইবার ও ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম পুর্ণ হলে আপনি মনিটাইজেশ পাবেন?  বরং এর পরিবর্তে এটি বলা যায় যে, এই শর্ত পুরণ করলে আপনি মনিটেইজেশনের জন্য আবেদন করার উপযুক্ত বলে বিবেচিত হবেন। আপনার চ্যানেলটি রিভিউতে চলে যাবেন এবং আপনি ইউটিউবের গাইডলাইন ফলো করে ভিডিও আপলোড দিয়ে থাকলে তবেই আপনি মনিটাইজেশন পাবেন।

Question ৫: ৪০০০  ঘন্টা ওয়াচটাইম পাওয়ার আগেই কি আমি এডসেন্স এর অনুমোদন পাব?

উত্তরঃ না, পাবেন না। এখন আডসেন্সের অনুমোদন পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে ১০০০  সাবস্ক্রাইবার এবং ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম পেতে হবে। এটি ছাড়া এডসেন্সের আবেদন করলে আপনি প্রত্যাখ্যাত হবেন। তাই ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১০০০ সাবস্ক্রাইবার অর্জন করুন এবং তারপর এডসেন্স এর জন্য আবেদন করুন। 

Question ৬: কিভাবে অতি দ্রুত অল্প সময়ের মধ্যে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার এবং ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম পাওয়া যায় বলবেন কি? 


উত্তর: দেখুন একেবারে অল্প সময়ে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১০০০ সাবস্ক্রাইবার পাওয়ার কোন শর্টকাট রাস্তা নেই তবে আপনি যদি সুশৃংখলভাবে নিয়মিত নিয়ম মেনে কনটেন্ট আপলোড এবং অন্যান্য বিষয়াদি সমন্বিতভাবে করেন তবে অবশ্যই আপনি নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১০০০ সাবস্ক্রাইবার পেয়ে যাবেন আশা করা যায়। কিভাবে সেটি করবেন জানতে আমার নিচে টিউটরিয়ালটি দেখুন আশা করি আপনি এখান থেকে অনেক উপকৃত হবেন।
 

No comments:

Post a Comment

Infotech Post Bottom Ad New

Pages