ইউটিউবে Video Boost বা প্রমোট করতে ও ইউটিউব এসইও করতে চান? ইউটিউবার হলে জানতে হবে। - জীবন গড়ি প্রযুক্তির সুরে ♫

Infotech Ad Top new

Infotech ad post page Top

ইউটিউবে Video Boost বা প্রমোট করতে ও ইউটিউব এসইও করতে চান? ইউটিউবার হলে জানতে হবে।

ইউটিউবে Video Boost বা প্রমোট করতে ও ইউটিউব এসইও করতে চান? ইউটিউবার হলে জানতে হবে।

Share This
মৌসুমী পাখি হিসেবে নয়, যাঁরা ইউটিউবিং এ নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান আজকে আমার এই পোস্টটি তাদের জন্য। আশা করি আপনাদের কাজে আসবে। ইউটিউব হেল্প বিডিতে অনেক মেম্বার দের প্রায়ই এই সকল প্রশ্ন  জিজ্ঞেস করতে দেখি-

  • ইউটিউবে ভিডিও প্রমোট বা ভিডিও বুস্টিং কী?

  • ইউটিউবে ভিডিও এসইও কী এবং সেটা কীভাবে করতে হয়?

  • ভিডিও বুস্টিং এর কী কী প্রয়োজন?  

উপরের সবকটি প্রশ্নের উত্তর খুজতে হলে আমাদের প্রথমে গুগল এ্যাডস (Google Ads) সম্পর্কে জানতে হবে। তো আসুন জানি একে একে। 


✍️ Google Ads কী?

Google Ads হচ্ছে বিশ্ব বিখ্যাত অনলাইন জায়ান্ট গুগল কর্তৃক ডেভেলপকৃত একটি এডভারটাইজিং প্লাটফর্ম যেখানে বিজ্ঞাপনদাতা ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান তাদের নিজস্ব পণ্য, সেবা, ভিডিও কনটেন্ট, প্রভৃতির বিজ্ঞাপন নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থের বিনিময় প্রদর্শন করে থাকে। মূলত এটি গুগলের এমন একটা সিস্টেম যে সিস্টেমে একজন বিজ্ঞাপনদাতা কোন নির্দিষ্ট কী-ওয়ার্ড বা কিওয়ার্ডসমূহের উপরে বিড ধরেন যাতে করে তার clickable এ্যাডটি গুগলের সার্চ রেজাল্টে প্রদর্শিত হয়। আর এ্যাড উপর এই ক্লিক এবং ভিউ এর জন্য বিজ্ঞাপন দাতাদের গুগলকে পে করতে হয়। এভাবেই গুগল, গুগল সার্চ থেকে অর্থোপার্জন করে। আর এই উপার্জনকৃত অর্থের একটা অংশ গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে কনটেন্ট ক্রিয়েটর এবং কনটেন্ট রাইটার দের মধ্যে শেয়ার করে। বিনিময়ে এসকল প্ল্যাটফর্ম গুলোতে গুগলের কিওয়ার্ড বেজড অ্যাডগুলো প্রদর্শিত হয়। তাই Google Ads কে বিজ্ঞাপনদাতাদের একটি Auction place বা অকশন প্ল্যাটফর্ম বলা যেতে পারে।

✍️ কিসের উপর ভিত্তি করে গুগলকে  বিজ্ঞাপনদাতারা তাদের বিজ্ঞাপন দেন?

প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ অনলাইন ইউজার বা ইন্টারনেট ব্যবহারকারী তাদের প্রয়োজনে বিভিন্ন কিওয়ার্ড লিখে গুগলে সার্চ দেন । Google Ads  কিওয়ার্ড প্ল্যানার নামে একটি টুলস এর মাধ্যমে সে সকল কীওয়ার্ডস এর ডাটা সংরক্ষণ করে। বিজ্ঞাপনদাতাগন Google Ads এ তাদের নিজস্ব জিমেইল এর মাধ্যমে সাইন ইন করলেই Keyword planner টুলসটিকে তাদের নিজের প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারে এবং এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

✍️ বিজ্ঞাপনদাতারা কিভাবে কী-ওয়ার্ড বাছাই করেন?

এই প্রশ্নের উত্তর সোজা ভাবে না দিয়ে একটি উদাহরণের মাধ্যমে দেওয়ার চেষ্টা করি। বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত রাত আটটার 'বাংলা সংবাদ' এবং হানিফ সংকেতের 'ইত্যাদি' এই দুটি প্রোগ্রামের মধ্যে কোন কীওয়ার্ডটির প্রতি আপনার আগ্রহ বেশি? আপনি নিশ্চয়ই বলবেন হানিফ সংকেতের ইত্যাদি অনুষ্ঠান টি আপনার নিকট বেশি প্রিয়। তাহলে বিজ্ঞাপনদাতারাও তাদের বিজ্ঞাপনের এড শো করানোর জন্য নিশ্চয়ই হানিফ সংকেতের ইত্যাদি অনুষ্ঠানটিকে স্পন্সর করবে। অনলাইনে ঠিক একই কাজটা বিজ্ঞাপনদাতারা গুগল কিওয়ার্ড প্ল্যানার এর মাধ্যমে করে থাকেন। সেখানে গিয়ে তারা দেখেন যে কোন কিওয়ার্ডের সার্চ ভলিয়ম প্রচুর এবং সেই কীবোর্ড টিকে তারা টার্গেট করেন। অবশ্য সার্চ ভলিয়ম প্রচুর হলেই সেটি টার্গেটেড কি হবে এমনটি নয়, এক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনদাতা সার্চ ভলিউম ছাড়াও তার মতো আরো কত অ্যাডভারটাইজার ওই কিওয়ার্ডটিকে টার্গেট করেছে, তার প্রোডাক্ট এর মার্কেট ভ্যালু কেমন এসব কিছু বিবেচনায় নিয়েই কী-ওয়ার্ড বাছাই করে থাকেন এবং তার উপরেই নির্ভর করে তার কী-ওয়ার্ড এর জন্য তিনি কত ব্যয় করতে ইচ্ছুক।

✍️ ইউটিউবার হিসেবে আপনি কেন গুগোল এ্যাডস ব্যবহার করবেন?


দেখুন, একজন ইউটিউবার হিসাবে আপনি মূলত দুটি কারণে গুগল এ্যাডস একাউন্ট টি কে কাজে লাগাতে পারেন।

  • প্রথমত: আপনার চ্যানেল ক্যাটাগরি অনুযায়ী ইউটিউব চ্যানেলটিকে অথবা ইউটিউব চ্যানেলের বিশেষ কোন কনটেন্টকে প্রমোট করে এখান থেকে আপনি ভিউজ এবং সাবস্ক্রাইবার তথা চ্যানেল পপুলারিটি এন্ড প্রায়োরিটি দুটোই বাড়িয়ে নিতে পারেন। তবে এজন্য আপনাকে গাঁটের পয়সা খরচ করতে হবে বৈকি। তবে আমার সাজেশন হলো চ্যানেল খুলেই প্রথমেই ইউটিউবের চ্যানেল প্রমোট এর জন্য পয়সা খরচ করার কোন মানেই হয়না। তাই প্রথমে চ্যানেল ক্রিয়েট করে তাতে মানসম্মত কন্টেন্ট আপলোড এবং ন্যাচারালি চ্যানেলের growth এর দিকে নজর দেওয়া উচিত। তারপর আপনার চ্যানেল টি একটি মাঝামাঝি পর্যায়ে গিয়ে দাঁড়ালে তখন সেটিকে প্রমটে চিন্তা করুন।

  • দ্বিতীয়তঃ ইউটিউব এর কনটেন্ট এসইও করতে আপনি গুগোল এ্যাডস এর keyword planner ব্যবহার করে এখান থেকে আপনি প্রচুর অর্গানিক ভিউজ অর্থাৎ ট্রাফিক আপনার চ্যানেলের নিয়ে আসতে পারেন। কিভাবে কিওয়ার্ড প্ল্যানার ব্যবহার করে ইউটিউব এর এসইও করতে হয় তা নিয়ে না হয় অন্য একদিন কথা বলা যাবে। কথা দিলাম আপনাদের এ নিয়ে বিশদ ভাবে আলোচনা করব অন্য কোন সময়।

✍️ Google ads এ একাউন্ট করতে কত খরচ লাগে?

দেখুন  Google ads একাউন্ট করতে কোন খরচ লাগে না এটি সম্পূর্ণ ফ্রী আপনার একটি জিমেইল একাউন্ট থাকলেই আপনি Google ads এ সাইনইন করতে পারবেন। এবং এর কিওয়ার্ড প্ল্যানার টুলসটি advertisers এবং কনটেন্ট ক্রিয়েটর উভয়েই সম্পূর্ণ ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে আপনার পণ্যের প্রচার এবং প্রসারের জন্য যখনি আপনি বিজ্ঞাপন দিতে চাইবেন তখনি কেবল আপনাকে আপনার পণ্য প্রমোটের জন্য পয়সা খরচ করতে হবে। খরচের মাত্রাটা নির্ভর করবে আপনার পণ্য টা কে আপনি কোন লেভেলে নিয়ে যেতে চান এবং আপনার বাজেট কত টুকু তার উপর।

✍️ ভিডিও কনটেন্ট প্রমোশনের জন্য কোনটি ভালো, Google ads না Facebook ads?

দেখুন এ প্রশ্নের উত্তরটি সরাসরি না দিয়ে কিছুটা ডিপ্লোম্যাটিক্যালি দেই। কারণ দুটি প্ল্যাটফর্মই বিশ্বের সেরা প্ল্যাটফর্ম। তবে সার্চ ইঞ্জিনের দিক থেকে গুগল এবং ইউটিউব পৃথিবীর প্রথম এবং দ্বিতীয় সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে খ্যাত। সুতরাং এবার আপনি সিদ্ধান্ত নিন আপনি কোন জায়গায় আপনার ভিডিও কনটেন্ট প্রমোট করবেন।

✍️ ইউটিউব থেকে ভিডিও কনটেন্ট প্রমোট করতে কি কি প্রয়োজন?

ইউটিউব থেকে ভিডিও কনটেন্ট প্রমোট করতে প্রয়োজন Google Ads একটি একাউন্ট তৈরি এবং  একাউন্টটিকে ইউটিউব চ্যানেলের সাথে লিংক করে রাখা। এবং ভবিষ্যতে প্রমোট এর জন্য ডলারসহ মাস্টার কার্ড সংগ্রহ করা। এক্ষেত্রে পেওনিয়ার মাস্টার কার্ডটি সকলের প্রথম পছন্দ। তবে আপনি চাইলে ইবিএল অর্থাৎ ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের মাস্টারকার্ড ও ব্যবহার করতে পারেন। তবে এতে ঝামেলা কম নয়, কেননা এতে ডলার এনডোর্স করতে আপনাকে আবার পাসপোর্ট করতে হবে।


✍️ Google ads অ্যাকাউন্ট টি কখন ইউটিউব চ্যানেলে  Connected বা Linked  করব?

আপনি যেকোনো সময় Google ads অ্যাকাউন্ট টি কে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সঙ্গে লিঙ্ক করতে পারবেন। তবে আমার পরামর্শ ইউটিউব চ্যানেল খোলার কিছুদিনের মধ্যেই Google Ads একাউন্ট টি কে আপনার চ্যানেলের সঙ্গে লিংক করে রাখুন এতে আপনার পরবর্তীতে কাজ করতে সুবিধা হবে।

✍️ ইউটিউবে কিভাবে গুগোল অ্যাপস অ্যাকাউন্ট লিঙ্ক করতে হয়?

সবকিছু তো আর শুনে হয় না, তাই একটু কষ্ট করে হলেও আমার চ্যানেলে গিয়ে একটি বার দেখে আসুন এই কাজটি করতে হয়। আর হ্যাঁ এত কষ্ট করে আপনাদের জন্য কনটেন্ট লিখি ভাল লাগলে আমার চ্যানেলটা সাবস্ক্রাইব করতে ভুলবেন না। টিউটোরিয়ালটি ভাল লাগলে কমেন্ট এবং লাইক দিতে ভুলবেননা।

No comments:

Post a Comment

Infotech Post Bottom Ad New

Pages